কুরআন মুখস্থ করলে স্বয়ং কুরআনের মধ্যেমে আল্লাহ জান্নাতে কুরআন মুখস্থকারীর মর্যাদা বৃদ্ধি করেন।

আবদুল্লাহ ইবনু আমর রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুমা হতে বর্ণিত, নাবী ﷺ বলেছেন,
(কিয়ামতের দিন) কুরআনের বাহককে বলা হবে, পাঠ করতে থাক ও উপরে আরোহণ করতে থাক এবং দুনিয়াতে যেভাবে ধীরে সুস্থে পাঠ করতে ঠিক সেরূপে ধীরে সুস্থে পাঠ করতে থাক। যে আয়াতে তোমার পাঠ সমাপ্ত হবে সেখানেই তোমার স্থান। [তিরমিযি : ২৯১৪, আবূ দাউদ : ১৪৬৪]

হাদিসের ভাষ্যে صَاحِبِ الْقُرْآنِ বা কুরআনের বাহক বলতে তাকে বোঝানে হয়েছে যিনি অন্তরে কুরআনকে ধারণ করেন। জান্নাতে তার মর্যাদার উন্নতি নির্ভর করবে যতটুকু কুরআন সে দুনিয়াতে মুখস্থ করেছে তার উপর। এই হাদিস নিঃসন্দেহে কুরআন মুখস্থকারী ব্যক্তির পুরষ্কারের দিকে ইঙ্গিত করে। তবে এটি শর্ত সাপেক্ষে যে তিনি এটি কেবল আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য করবেন এবং এতে দুনিয়াবি কোন উদ্দেশ্য বা আর্থিক লাভ থাকবে না।

[ইসলামকিউএ থেকে অনূদিত]