– বাচ্চাদের ডিজিটাল স্ক্রীন আসক্তি (Screen Addiction) নিয়ে কাজ করা বিশেষজ্ঞরা বলছেন, “ডিজিটাল ডিভাইসগুলো ডিজিটাল ড্রাগের একটি রুপ”।

– ভিডিও গেইমে কেউ খেলাতে জিতলে তা ব্রেন থেকে ডোপামিন ছড়ায় ঠিক সেভাবে যেভাবে সিগারের ফিল্টারে টান দেওয়ার সময় ছড়ায়।

– মোবাইল/স্ক্রীন আসক্তি ব্রেইনের ‘ফ্রন্টাল করটেক্স’ এ সেভাবে প্রভাব খাটায় ঠিক যেভাবে কোকেইন প্রভাব খাটায়। ফ্রন্টাল করটেক্স হলো ব্রেইনের সেই অংশ যা মানুষের আবেগ, অনুভূতি, চিন্তা করার ক্ষমতা,
কথা বলা, সমস্যার সমাধান করা – ইত্যাদি কাজ করে। এসব গুণগুলো নষ্ট করতে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে এই ডিজিটাল ডিভিাইসগুলো।

– প্রতি ৪ জনে একজন শিশু প্রতিদিন ৩ ঘন্টার অধিক সময় মোবাইল/ডিজিটাল ডিভাইস ব্যবহার করে।

– শিশুরা কথা বলা, হাঁটা, পড়া শেখার আগেই এসব ডিজিটাল ডিভাইস চালানো শিখছে। যা তাদের অল্পবয়স্ক চোখে এবং ব্রেইনের জন্য মারাত্নক ঝুকিপূর্ণ।

– সূর্যের আলো থেকে দূরে থাকা সেই সাথে ডিজিটাল স্ক্রীনের আলো শিশুদের ভবিষ্যৎ দৃষ্টি সমস্যা, মাইগ্রেন, খিটখিটে মেজাজ ইত্যাদি সমস্যার জন্য চরমভাবে দায়ী।

[হোয়াটসড্রাইআই.কম থেকে অনূদিত]