মধ্যযুগে মুসলিম ভূগোলবিদ এবং মানচিত্রকার আবু আব্দুল্লাহ মুহাম্মাদ আল ইদরীস পৃথিবীর একটি মানচিত্র আঁকেন। ১১৫৪ খ্রীষ্টাব্দে আঁকা ‘ট্যাবুলা রোজারিয়ানা (Tabula Rogeriana)’ নামে পৃথিবীর এই মানচিত্রটি প্রায় ৩০০ বছর ধরে একমাত্র নির্ভরযোগ্য মানচিত্র হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল। এটি ক্রিস্টোফার কলম্বাস এবং ভাসকো ডা গামা এর মত বড় বড় অনুসন্ধানকারীরাও তাদের অনুসন্ধান কাজে ব্যবহার করেছিল। এছাড়াও তার এই অনন্য কীর্তি ইবন বতুতা, ইবন খালদুন এর মত অনেক মুসলিম ভূগোলবিদকে অনুপ্রেরণা দিয়েছিল।

মানচিত্রটিতে তিনি নকশার পাশাপাশি পৃথিবীর বিভিন্ন স্থানের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিয়েছেন। এছাড়া তিনি অত্যন্ত সুনিপুণ এবং সঠিকভাবে সাগর, হৃদ, নদী ইত্যাদির অবস্থান তুলে ধরেছেন যেগুলোর অনেক অংশ আজও সঠিক এবং নির্ভরযোগ্য হিসেবে বিবেচিত হয়। মানচিত্রে তিনি সারা পৃথিবীকে ৭ টি অঞ্চলে ভাগ করেছিলেন।

মানচিত্র ছাড়াও তাঁর অনন্য আরেক কীর্তি হচ্ছে নুজহাত আল মুশতাক নামে তাঁর রচিত গ্রন্থ। যেটি মোট ৯ টি ম্যানুস্ক্রিপ্টে লিখিত। যার মধ্যে ৭ টিই মানচিত্র। পরবর্তীতে বইটি নানান ভাষায় অনূদীত হয়েছে।

সূত্রসমূহ : ইসলামিক হিস্টরি ইন্সটিউট, উইকিপিডিয়া, হিস্টরি অফ ইনফরমেশন।