আরবি “রামাদান”/“رمضان” শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে “رَمِضَ” রামিদ্বা শব্দ থেকে, যার অর্থ : ‘তীব্র দহন তাপ’ এবং “الرمضاء” রামদ্বা শব্দ থেকে, যার অর্থ : ‘রোদে পোড়া বালি’।

রামাদানের এরকম নামকরণের কারণ হল– রামাদান মাস আমাদের পাপসমূহ পুড়িয়ে দেয়। সূর্যের তাপ যেমন মাটি থেকে পানিকে বাষ্পিভূত করে বের করে আনে, রামাদানও ঠিক তেমনিভাবে আমাদের থেকে পাপগুলো বের করে আনে।

ইবনুল জাওযী -এর ভাষায় :
১২ টি মাস ইয়াকুব আলাইহিস সালামের ১২ টি সন্তানের ন্যায়। রামাদান মাসটির তুলনা ইউসুফের মত। সে ছিল ইয়াকুবের নিকট সব সন্তানের চাইতে বেশি স্নেহধন্য।
সুতরাং রামাদান মাসও অন্যান্য মাসের চাইতে আমাদের নিকট অধিক প্রিয়। [বুস্তানুল ওয়ায়িজিন ১/২১৮]